Categories
See All >
করোনাকালে প্রয়োজনীয় যন্ত্র : Pulse Oximeter

করোনাকালে প্রয়োজনীয় যন্ত্র : Pulse Oximeter

Research & Reviews
Hit Count : 326
করোনা মহামারীর এ সময়ে বহুল ব্যাবহৃত একটি যন্ত্র  হল  Pulse Oximeter। যন্ত্রটি কেনার  হার বেড়েছে  করোনা  ভাইরাসের প্রকোপ বাড়ার সাথে সাথে । কিন্তু অনেকেই  হয়তো  যন্ত্রটির  নামই জানে না , জানে না কী কাজে  করা  হয়  এই  pulse  oximeter। 


Pulse oximeter কী ?

Pulse oximeter হৃৎস্পন্দন ও শরীরে অক্সিজেনের মাত্রা মাপার যন্ত্র । Pulse oximeter দেখতে  একটা কাপড় মেলার ক্লিপের মতো । এই ডিভাইজে হাতের একটা আঙুল ঢুকালে কয়েক সেকেন্ডের মধ্যেই আপনার শরীরে অক্সিজেনের মাত্রা কেমন তা ছোট স্ক্রিনে ফুটে উঠবে ।


Pulse oximeter কেন  প্রয়োজন ?

করোনাভাইরাস সংক্রমণ হলে প্রথমেই রোগীর রক্তে অক্সিজেনের মাত্রা কমতে শুরু করে। তাই নিয়মিত রক্তে অক্সিজেনের পরিমাণ মাপা জরুরি। আর এই জন্যই প্রয়োজন একটি Pulse Oximeter।


এ ছাড়া নানা কারণে বা অসুখে শ্বাস-প্রশ্বাসে সমস্যা হতে পারে, হৃৎস্পন্দন খুব কম, বেশি বা অনিয়মিত হতে পারে। Pulse oximeter দিয়ে ঝটপট মেপে নেওয়া যেতে পারে হৃৎস্পন্দন ও শরীরে অক্সিজেনের মাত্রা। সমস্যা বেশি মনে হলে হাসপাতালে বা চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়াই ভালো।


Pulse Oximeter-এর মাধ্যমে অক্সিজেন লেভেল মাপবেন কীভাবে?

·      রক্তে অক্সিজেনের পরিমাণ মাপার আগে অন্তত 5 মিনিট বিশ্রাম নিন। 

·       পালস অক্সিমিটার অন করে তর্জনী ঢুকিয়ে দিন। 

·       শুরুতে রিডিং বদলাতে থাকবে। রিডিং স্থির হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করুন। 

·       সব থেকে বেশি যে সংখ্যাটি অন্তত 5 সেকেন্ড বদলায়নি, সেই সংখ্যাটি লিখে রাখুন।

 

সঠিক ভাবে Pulse Oximeter ব্যবহারের কিছু টিপস 

Pulse oximeter ব্যবহার করতেও নিতে হয় না বিশেষ প্রশিক্ষণ। তবে কিছু নির্ভুল পাঠ পেতে কিছু বিষয়ে লক্ষ্য রাখতে হবে ।


১.কোভিড রোগীকে ঘরের মধ্যে 6 মিনিট হাঁটাচলা করতে হবে। হাঁটার 6 মিনিট আগে ও পরে অক্সিজেন লেভেল পরীক্ষা করতে হবে।


২.এই দুই রিডিংয়ের পার্থক্য 4 শতাংশের বেশি হলে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার প্রয়োজন ।


৩.অক্সিজেন লেভেল 94 শতাংশের নীচে নামলে যত দ্রুত সম্ভব রোগীকে হাসপাতালে নিয়ে যেতে হবে।




 

৪.ডান হাতে কাজ করতে অভ্যস্ত মানুষ ডান মধ্যমা ও বুড়ো আঙুল এবং বাঁ হাতে বেশি কাজ করতে অভ্যস্ত মানুষের ক্ষেত্রে বাঁ হাতের মধ্যমা ও বুড়ো আঙুল ভালো ফল দেয়।


৫.হাত যদি শরীরের তাপমাত্রার চেয়ে বেশি ঠান্ডা থাকে, তাহলে অক্সিমিটার সঠিকভাবে কাজ করে না। তাই ব্যবহারের আগে অবশ্যই এই ব্যাপারে বিশেষ নজর দিতে হবে।


৬.রোগীর আঙুলে কোনও প্রকার নেল পালিশ অথবা ফলস নেল থাকলে চলবে না।


কিছু ভালো মানের Pulse oximeter এর তালিকা

1. Beurer PO30 Fingertip Pulse Oximeter


ব্রান্ড: Beurer



 1. 3 year warranty.

 2.Adjustable display brightness.

 3.Graphic pulse display.

 4.Small and light  for use at home and on the move.

 5..Automatic switch-off.

 6.Low battery indicator.

2. CE & FDA Certify Fingertip OLED Pulse Oximeter


ব্রান্ডIMDK

 


 1. 6 month warranty.

 2.Determine the level of oxygen in blood  in 8 seconds

 3.OLED display for an easy read

 4.Low-power consumption

 5.Lightweight: weights only 2.2 oz (batteries not included)

 6.Fits every finger size.



3. Medisana PM100 Fingertip Pulse Oximeter


ব্রান্ড: Medisana



 1.Battery level indicator.

 2.Oxygen saturation and pulse can be displayed in bar   graph   or waveform.

 3.10 adjustable brightness levels.

 4.6 different view displays.

 5.Automatic switch-off after 8 seconds. 


4.JUMPER JPD-500G Portable Fingertip Pulse Oximeter


ব্রান্ডJumper



1.Bright and clear LED display.

     2.Adjustable brightness up to 3 levels. 

     3.Lightweight and Portable.

     4.High Accuracy.

     5.Perfect for the medical center, health-conscious people, etc          

5.HealForce A3 Fingertip Mini Pulse Oximeter Blood Oxygen Saturation


ব্রান্ড: Heal force.



 1.Low power consumption.

 2.One key design with automatic power on / off.

 3..Portable, Small and lightweight.

 4.Pulse sound function, alarm function.

 5.Warranty 01 Year.





6.Jumper JPD-500D Pulse Oximeter


ব্রান্ড: Jumper



 1.OLED display, brightness adjustable.

 2.Pulse rate value display, bar graph display.

 3. Low-voltage indication, Pulse sound, Alarm function.

 4. Auto shut off without signal after 10s.

 5. Small light convenient.



পরিমাপ কতোটা নির্ভুল হবে সেটা কিছু বিষয়ের ওপর নির্ভর করে  আঙ্গুলে রক্ত চলাচল কেমন, চামড়ার পুরুত্ব কতো, চামড়ার রঙ কেমন, চামড়ার তাপমাত্রা  ইত্যাদির ওপর।  তাই এ বিষয়ে সর্তক থাকতে হবে ।

 

লিখেছেন - ইরোনা মৌমিতা

০৯ ফেব্রুয়ারি ,২০২২

 

তথ্যসূত্র:

https://eisamay.com/

https://www.bbc.com/

https://www.jagonews24.com/

https://medicalstore.com.bd/